বইমেলায় জবি শিক্ষকের 'সাখাওয়াত আলী খান ও অন্যান্যের একাত্তর'

  • জবি প্রতিনিধি:
  • শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১১:০২:০০
  • কপি লিঙ্ক

একুশে বই মেলায় মহান মুক্তিযুদ্ধে সাংবাদিকতা ও আনুষাঙ্গিক ইতিহাস নিয়ে প্রকাশিত হয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. মিনহাজ উদ্দীনের বই 'সাখাওয়াত আলী খান ও অন্যান্যের একাত্তর'। 

শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সাক্ষাৎকারভিত্তিক এই বইটি প্রকাশ করেছে শ্রাবণ প্রকাশন। প্রচ্ছদ করেছেন দেশবরেণ্য অঙ্কন শিল্পী মাসুক হেলাল।   

এই গ্রন্থে স্থান পেয়েছে সাখাওয়াত আলী খানসহ বেশ কয়েকজন সাংবাদিকের সাক্ষাৎকার। এই তালিকায় আছেন তোয়াব খান, আবেদ খান ও কামাল লোহানী। ১৯৭১ সালে সাখাওয়াত আলী খান ও তোয়াব খান কর্মরত ছিলেন দৈনিক বাংলায়। তাদের সাক্ষ্যে উঠে এসেছে ২৫ মার্চ কলরাতের ধ্বংসলীলা, বর্বর হত্যাযজ্ঞ, অবরুদ্ধ বাংলাদেশে সাংবাদিকতাসহ আর্থ-সামাজিক অবস্থার নানা চিত্র। আর দৈনিক ইত্তেফাকে কর্মরত ছিলেন আবেদ খান। ২৬ মার্চ পাকিস্তানি ট্যাঙ্কের গোলায় ধ্বংসপ্রাপ্ত হওয়ার সময় আবেদ খান দৈনিক ইত্তেফাক অফিসেই ছিলেন। বাঙালির যুদ্ধদিনে দৈনিক পূর্বদেশে কর্মরত কামাল লোহানী তাঁর বিস্তারিত সাক্ষাৎকারে তুলে ধরেছেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের সূচনা থেকে শুরু করে ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত নানা ঘটনা।এছাড়া কয়েকটি পরিশিষ্টে তুলে ধরা হয়েছে একাত্তর সালের জেনোসাইডের আইকনিক একটি ছবি এবং যুদ্ধদিনে বাঙালির মার্কিন বন্ধু আর্চার কেন্ট ব্লাডকে নিয়ে একটি সংক্ষিপ্ত আলোচনা। 

বইটি সম্পর্কে লেখক ও গবেষক মো. মিনহাজ উদ্দীন বলেন, বইটিতে যুদ্ধদিনের সাংবাদিকতার অনন্য ইতিহাস উঠে এসেছে। ১৯৭১ সালে একজন সাংবাদিক কীভাবে কাজ করেছেন, পরিস্থিতি কেমন ছিল, কতোটা ভীতির মধ্যে দিয়ে তারা কাজ করেছেন সেই চিত্র নিখুঁতভাবে উঠে এসেছে। তিনি আরো বলেন, ইতিহাস গবেষক এবং গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীরা বইটি থেকে উপকৃত হতে পারে। নতুন নতুন তথ্য পেতে পারে। 

বইটি সম্পর্কে শ্রাবণ প্রকাশনীর প্রকাশক রবীন আহসান বলেন, শ্রাবণ প্রকাশনী মুক্তিযুদ্ধের প্রতি বিশেষভাবে দায়বদ্ধ। আমরা ধারাবাহিকভাবে মুক্তিযুদ্ধের বই প্রকাশ করে আসছি। সাখাওয়াত আলী খান ও অন্যান্যের একাত্তর তার সবশেষ সংযোজন। বইটি খুবই তথ্যসমৃদ্ধ। আমি মনে করি সাংবাদিকতার শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি বইটি ইতিহাস গবেষকদেরও কাজে লাগবে। বইটির দাম রাখা হয়েছে ৩০০ টাকা। ২৫-৩০ শতাংশ ছাড়ে বই দুটি পাওয়া যাবে শ্রাবণ প্রকাশনীর ৪৬৩-৪৬৪-৪৬৫ নম্বর স্টলে। 

এই বই দুটি লেখক মিনহাজ উদ্দীনের এগারতম বই। এর আগে তিনি লিখেছেন,সায়মন ড্রিং ও অন্যান্যের একাত্তর, ১৯৭১:  তাজউদ্দীন, মুজিব বাহিনী ও অন্যান্য, বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড: কী চেয়েছিল ভুট্টোর পাকিস্তান, নভেম্বর ক্যু ৭৫: অন্ধকার সময়ের সংবাদচিত্র, রনো ও অন্যান্যের একাত্তর, পশ্চিম পাকিস্তানে বঙ্গবন্ধুর বন্দিজীবন, মুখোমুখি মহিউদ্দিন,  সাংবাদিকতা: প্রতিবেদন লেখার প্রথম পাঠ, মাধ্যম সাক্ষরতা, সাংবাদিকতার প্রথম পাঠ এবং বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ: সংবাদপত্রের আধেয় বিশ্লেষণ শিরোনামের বইগুলো। 

শিক্ষকতার পাশাপাশি মিনহাজ উদ্দীন মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে পড়াশোনা ও গবেষণায় নিয়োজিত আছেন। সাংবাদিকতা ও লেখালেখির অঙ্গনে তিনি রাহাত মিনহাজ নামে পরিচিত। তাঁর প্রথম দিককার কয়েকটি বই এই নামে প্রকাশিত হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

মন্তব্য