রিয়াদকে যে কারণে বাদ দেন হাথুরুসিংহে

  • অনলাইন
  • সোমবার, ৩১ জুলাই ২০২৩ ০৭:০৭:০০
  • কপি লিঙ্ক

আগস্টের শেষ নাগাদ শুরু হবে এশিয়া কাপের আসর। ওয়ানডে ফরম্যাটের এই মেগা টুর্নামেন্টকে সামনে রেখে ৩২ ক্রিকেটার নিয়ে প্রস্তুতি ক্যাম্প শুরু করেছে বাংলাদেশ দল। এই স্কোয়াড থেকে ফিটনেস পরীক্ষার পর ২০-২২ জনের প্রাথমিক স্কোয়াড ঘোষণা করবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সেখান থেকেই বেছে নেওয়া হবে এশিয়া কাপের চূড়ান্ত দল।

এশিয়া কাপে টাইগারদের চূড়ান্ত দলে কারা থাকবেন তা প্রায় নিশ্চিত। তবে দুই-তিনটি পজিশন নিয়ে এখনও বেশ সংশয়ে রয়েছে টিম ম্যানেজমেন্ট। যা নিয়ে বেশ জটিলতায় ভুগছে বিসিবিও। এরই মধ্যে এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপকে সামনে রেখে জাতীয় দল গঠন নিয়েও বিপাকে পড়েছে দেশের ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থাটি।

বাংলাদেশ দলের সাত নম্বর পজিশনে আগে থেকেই বেশ কয়েকজনকে বাজিয়ে দেখেছে বিসিবি। তবে যারা সুযোগ পেয়েছেন, তারাও সেভাবে নিজেদের মেলে ধরতে পারেননি। তাই বড় আসরে অভিজ্ঞ মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকেই এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপ দলে নিতে চান বোর্ডের প্রভাবশালী কতিপয় পরিচালকরা।

তবে এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপে রিয়াদকে দলে চান না টাইগারদের প্রধান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। সূত্র থেকে জানা যায়, স্কিল ক্যাম্পের জন্য লঙ্কান এই মাস্টারমাইন্ড কোচের দেওয়া ২০ জনের তালিকায়ও রিয়াদের নাম নেই। পারফরম্যান্স করার পরও কেনো রিয়াদকে জাতীয় দল থেকে বাদ দেওয়া হয়েছিল এ প্রশ্নও অনেকের।

গত মার্চে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের দলে ছিলেন মাহমুদউল্লাহ। এরপর আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে দেশ ও দেশের বাইরে দুই সিরিজের দল থেকে বাদ পড়েন তিনি। সবশেষ আফগানিস্তান সিরিজে রিয়াদের দলে ফেরার গুঞ্জন ছড়ালেও হজ পালনের উদ্দেশ্যে বোর্ড থেকে ছুটি নেন ৩৭ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার।

ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ শেষে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন ও ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুসের সঙ্গে আলোচনায় হাথুরুসিংহে সাফ জানিয়ে দেন, ফিল্ডিংয়ের ওপর জোর দিতে চান তিনি। তাই ইংল্যান্ডের বিপক্ষে কাঙ্ক্ষিত মানের ফিল্ডিং না পাওয়ায় রিয়াদকে দল থেকে বাদ দেওয়া হয়।

এদিকে এশিয়া কাপকে সামনে রেখে শুরু হওয়া প্রস্তুতি ক্যাম্পে ডাক পেয়েছেন রিয়াদ। তবে এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপের মূল দলে অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটারের জায়গা হবে কি না—সেটা এখনও নিশ্চিত না। তাই শেষ পর্যন্ত নাটকীয়তা কোথায় গিয়ে ঠেকে, সেটিই এখন দেখার অপেক্ষায় বাংলার ক্রিকেটপ্রেমীরা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

মন্তব্য