রাজধানীতে বাথরুমে পড়ে ছিল চিকিৎসকের পোকা ধরা মরদেহ

  • অনলাইন
  • বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২ ০৪:০৭:০০
  • কপি লিঙ্ক

রাজধানীর বড় মগবাজার এলাকার একটি বাসা থেকে এক চিকিৎসকের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ওই চিকিৎসকের নাম ইকবাল উদ্দিন আহমেদ (৭২)। মঙ্গলবার (৫ জুলাই) দিনগত রাতে বড় মগবাজার ২২৭ নম্বর গ্র্যান্ড প্লাজার সাততলার নিজ ফ্ল্যাটের দরজা ভেঙে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয় বলে বুধবার (৬ জুলাই) ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) নিশ্চিত করেছে।

আইনি প্রক্রিয়া শেষে ময়নাতন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে সিদ্ধেশ্বরী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (এসআই) মোফিজুর রহমান জানান, মৃতের স্ত্রী-মেয়ে দেশের বাইরে থাকেন। তাদের সঙ্গে কয়েক সপ্তাহ ধরে তার কোনো যোগাযোগ হচ্ছিল না। ট্রিপল নাইনের মাধ্যমে খবর পেয়ে রাতে ওই বাসা থেকে ডা. ইকবাল উদ্দিনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তার মরদেহে পোকা ধরে গেছে। ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

এদিকে, ইকবাল উদ্দিনের একমাত্র মেয়ের জামাই আরিফুর রহমান সিদ্দীক জানান, মেয়েকে নিয়ে মৃতের স্ত্রী হাবিবা বেগম সৌদি আরব থাকেন। ডা. ইকবাল উদ্দিনও সেখানে ছিলেন। এর আগে দুইবার স্ট্রোক করায় ৫-৬ বছর আগে তিনি দেশে চলে আসেন। এরপর থেকে বড় মগবাজারের ওই নিজ ফ্ল্যাটে একাই থাকতেন।

তিনি আরও জানান, সব শেষ দুই সপ্তাহ আগে স্ত্রী-মেয়ের সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা হয়েছে তার। এরপর থেকে ফোনের রিং হলেও আর যোগাযোগ করতে পারছিলেন না তারা। মঙ্গলবার বাড়ির কেয়ারটেকার সার্ভিস চার্জের জন্য ওই বাসায় গিয়ে তাকে অনেক ডাকাডাকি করেন। কিন্তু ভেতর থেকে কোনো সাড়া না পেয়ে পরে বিষয়টি স্বজনদের জানান। এরপর থানা পুলিশকে জানালে তারা দরজা ভেঙে ভেতর থেকে তার গলিত পোকা ধরা মরদেহ উদ্ধার করে। বাসার বাথরুমে উপুড় হয়ে পড়েছিলেন তিনি। পুলিশের ধারণা, অসুস্থার কারণেই মৃত্যু হয়েছে তার। তবে বেশ কয়েকদিন ধরে ওভাবে পড়ে থাকায় মরদেহে পচন ধরেছে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

মন্তব্য