কমতে পারে শীতের তীব্রতা

  • অনলাইন
  • শুক্রবার, ০৫ জানুয়ারী ২০২৪ ১১:০১:০০
  • কপি লিঙ্ক

দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা গতকাল বৃহস্পতিবার কিছুটা বেড়েছে। এতে সামান্য কমেছে শীতের তীব্রতা। আবহাওয়াবিদরা বলছেন, আগামী কিছুদিন তাপমাত্রা বাড়ার প্রবণতা অব্যাহত থাকতে পারে। আগামী ৯ জানুয়ারি থেকে তাপমাত্রা কমে আবার বাড়তে পারে শীতের তীব্রতা।

এদিকে আগের দিন বুধবার দেশের তিন জেলায় শৈত্যপ্রবাহ থাকলেও গতকাল এর বিস্তৃতি কিছুটা কমেছে। গতকাল উত্তরের দুই জেলা দিনাজপুর ও পঞ্চগড়ের ওপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ (৮-১০ ডিগ্রি) বয়ে গেছে। আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, তাপমাত্রা বেড়ে আজ শৈত্যপ্রবাহের বিস্তৃতি আরো কমতে পারে।

আবহাওয়াবিদ মো. ওমর ফারুক গতকাল রাতে বলেন, ‘সামনের দিনগুলোতে সারা দেশেই তাপমাত্রা একটু বাড়তির দিকে যাবে।

এতে শীতের তীব্রতা কিছুটা কমতে পারে। তবে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ার মতো দু-একটি জেলায় শৈত্যপ্রবাহের মতো পরিস্থিতি থাকতে পারে।’
আবহাওয়া অধিদপ্তরের দেওয়া পূর্বাভাসে বলা হয়েছে,  আজ শুক্রবার মধ্যরাত থেকে পরদিন সকাল পর্যন্ত সারা দেশে মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে। দেশের কোথাও কোথাও দুপুর পর্যন্ত থাকতে পারে তা।

ঘন কুয়াশার কারণে বিমান চলাচল, অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন এবং সড়ক যোগাযোগ ব্যাহত হতে পারে। সারা দেশে আজ দিন ও রাতের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে।
আগামীকাল শনিবার যশোর, কুষ্টিয়া, রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের দু-এক জায়গায় হালকা বা গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

বৃষ্টির সম্ভাবনা প্রসঙ্গে আবহাওয়াবিদ ওমর ফারুক বলেন, ‘এটা উল্লেখযোগ্য কিছু নয়। এসব জেলা মূলত মেঘলা থাকতে পারে।

দু-এক ফোঁটা বৃষ্টি হতে পারে। মেঘ কেটে যাওয়ার পর তাপমাত্রা আবার কমে শীতের তীব্রতা বাড়তে পারে ৯ জানুয়ারি থেকে।’
গতকাল দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায়, ৮.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। দিনাজপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৯.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ সময় রাজধানীতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ১৪.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

মন্তব্য