২০২১ সালের ডিসেম্বরেই পদ্মা সেতু চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে -রেলমন্ত্রী

  • ওয়াহিদ মুরাদ, (মাদারীপুর প্রতিনিধি) :
  • বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০৮:৪১:০০

পদ্মা সেতু তৈরির মত সাহসী পদক্ষেপ নেওয়া একমাত্র প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষেই সম্ভব। কারন তিনি বঙ্গবন্ধু কন্যা। পদ্মা সেতু হয়ে  রেল সংযোগ বরিশাল হয়ে কুয়াকাটা, পায়রাবন্দর পর্যন্ত নেওয়া হবে। আর আগামী বছর ২০২১ সালের ডিসেম্বর মাসেই যান চলাচলের জন্য পদ্মা সেতু খুলে দেওয়া হবে বলেছেন রেলমন্ত্রী মো: নুরুল ইসলাম সুজন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে মাদারীপুরের শিবচরের পাঁচ্চরে এ্যামিটি ক্যাফে রেস্তরায় পদ্মা সেতুর রেল লাইনে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে পুনর্বাসন সুবিধার চেক বিতরন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ারিং কোর-কনস্ট্রাকশন সুপারভিশন কনসালট্যান্ট (সিএসসি) ও বাংলাদেশ রেলওয়ের সহযোগিতায় প্রকল্প বাস্তবায়নকারী বেসরকারী সংস্থা র্ডপ এর আয়োজনে পদ্মা সেতুর রেল লাইনে ক্ষতিগ্রস্থ ২৮ পরিবারের মাঝে ১ কোটি ১২ লাখ টাকার পুনর্বাসন সুবিধার চেক প্রদান করা হয়। 

প্রকল্প পরিচালক ও অতিরিক্ত সচিব প্রকৌশলী গোলাম ফখরুদ্দিন আহমেদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে রেলপথ মন্ত্রনালয়ের সচিব মো: সেলিম রেজা, বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক মো: শামছুজ্জামান, সিএসসির প্রধান সমন্বয়ক মেজর জেনারেল এফ এম জাহিদ হোসেন, ডরপ্ চেয়ারম্যান মো: আজহার আলী তালুকদার, মাদারীপুর জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন, পুলিশ সুপার মাহবুব হাসান,শিবচর পৌরসভার মেয়র মো: আওলাদ হোসেন খান, ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান বিএম আতাউর রহমান, উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আ: লতিফ মোল্লা, সাধারন সম্পাদক ডা: মো: সেলিম, মাদবরচর ইউপি চেয়ারম্যান চৌধুরী সুলতান মাহমুদ প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন। এর আগে মন্ত্রী মুন্সিগঞ্জের মাওয়া ও শরীয়তপুরের জাজিরা পয়েন্টে পদ্মা সেতুর রেল সংযোগের কাজ পরিদর্শন করেন।

চেক বিতরন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রেলমন্ত্রী আরো বলেন, আমরা চট্টগ্রাম থেকে যেমন যেমন কক্সবাজার , খুলনা থেকে মংলা পর্যন্ত রেল লাইন সম্প্রসারন করছি। তেমনি ঢাকা থেকে পদ্মা সেতু হয়ে পায়রাবন্দর পর্যন্তও রেল সংযোগ করছি। যাতে ভারতসহ আমাদের এই এলাকার আভ্যন্তরিন পথে সড়ক পথের সাথে সাথে রেল যোগাযোগও যেন সুপ্রতিষ্ঠিত হতে পারে তার ব্যাবস্থা করছি। আমাদের এসকল প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হলে আমার বিশ্বাস আগামী ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধশালী যে দেশের কথা আমরা ভাবছি তা তৈরি করা সম্ভব হবে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

মন্তব্য