জানুন নুসরাত-যশের অজানা কাহিনী

  • অনলাইন
  • বৃহস্পতিবার, ১০ জুন ২০২১ ০১:১৫:০০

ওপার বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী নুসরাত জাহান। ক’দিন থেকেই আলোচনার শীর্ষে নুসরাতের অন্তঃসত্ত্বার খবর। অবশ্য তিনি নিজেই বলেছিলেন তিনি সন্তানসম্ভবা। তবে স্বামী নিখিল জৈন এই সন্তান তার নয় বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন। এরপর কিছুটা চুপ থাকলে পরে মুখ খুলেন নুসরাত।

নুসরাত জানান, নিখিলকে বিয়ে করিনি আমি, তার লিভ-ইন করেছি। তাই বিচ্ছেদের প্রশ্নই ওঠে না! পার্ক স্ট্রিট কাণ্ডে জড়িত কাদের খানের সঙ্গে তার সম্পর্ক থেকে নিখিল জৈনকে বিয়ে এবং সাম্প্রতিককালে যশ দাশগুপ্তর সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে খবরের শিরোনামে নুসরাত।

প্রেম করে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন অভিনেত্রী নুসরাত জাহান এবং ব্যবসায়ী নিখিল জৈন। ২০১৯ সালে বিয়ের কাজ সেরেছিলেন তুরস্কে গিয়ে। যদিও পরবর্তীতে বিয়ের রেজিস্ট্রেশন হয়নি। আর এই প্রসঙ্গ টেনেই মুখ খুলেছেন নুসরাত। জানালেন, তুরস্কের বিবাহ আইন অনুসারে এই বিবাহ অবৈধ। উপরন্তু হিন্দু-মুসলিম বিবাহের ক্ষেত্রে বিশেষ বিবাহ আইন অনুসারে বিয়ে করা উচিত, যা এ ক্ষেত্রে মানা হয়নি। ফলত, এটা বিয়েই নয়।

নিখিলের সঙ্গে বিয়ের পর নতুন করে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন নুসরাত। অভিনেতা যশ দাশগুপ্তের সঙ্গে নাম জুড়ে যায়। তার আগে থেকেই পর্দায় দু’জনের সমীকরণ নিয়ে দর্শকদের মধ্যে মাতামাতি ছিল। পর্দার প্রেম ধীরে ধীরে বাস্তবে পরিণত হয়।

২০১৭ সালে যুগলের প্রথম ছবি- ‘ওয়ান’। তখন থেকে তাদের আলাপ, বন্ধুত্ব। তারপর ২০২০ সালে ‘এসওএস কলকাতা’-র শ্যুটিংয়ের সময় থেকে ঘনিষ্ঠতা বাড়ে যশ এবং নুসরাতের মধ্যে।

যশের সঙ্গে আজমির দরগায় গিয়েছিলেন নুসরাত। সে সময় দু’জনের একসঙ্গে যাওয়ার ভিডিও প্রকাশ্য করেছিল বিভিন্ন গণমাধ্যম। এরপর মদন মিত্রের সঙ্গে দক্ষিণেশ্বর মন্দিরেও দেখা যায় যশ ও নুসরাতকে।

শোনা যায় দক্ষিণেশ্বরেই তাদের বিয়ে হয়। এরপর দ্রুত বদলে যেতে থাকে নিখিল-নুসরাতের সম্পর্কের সমীকরণ। নুসরাত বালিগঞ্জের ফ্ল্যাটে একা থাকতে শুরু করেন। যে ফ্ল্যাটের অর্ধেক টাকা নিখিলের দেওয়া। যশ এখন বেশির ভাগ সময় ওই ফ্ল্যাটেই নুসরাতের সঙ্গে সময় কাটান।

আগের প্রেমিকার ঘরেও একটি ছেলেও আছে যশের। বর্তমানে মা পুনমের কাছেই থাকেন ওই ছেলে। জানা গেছে, রোজ গভীর রাতে যশ ফিরে যান তার প্রাক্তন প্রেমিকা পুনমের কাছে। পুনম যশের ছেলের সমস্ত দায়িত্ব স্বেচ্ছায় বহন করেন।

বেশ কয়েক দিন হল যশ ও নুসরাত নিজেদের প্রেম কাহিনি সামনে আনতে শুরু করেছেন। নেটমাধ্যমে একে অপরের তোলা ছবি দেওয়া থেকে শুরু করে একই ছবি নিজেদের ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে দেওয়া থেকেই বোঝা যায় সময়ের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে লুকোছাপা বা জড়তা কেটে গিয়েছে। সূত্র: আনন্দবাজার

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

মন্তব্য