নতুন শিক্ষাক্রম নিয়ে অনেক বাধা তৈরি হচ্ছে : শিক্ষামন্ত্রী

  • অনলাইন
  • বুধবার, ২৯ মার্চ ২০২৩ ০৫:০৩:০০
  • কপি লিঙ্ক

পদ্মা সেতু নিয়ে যেমন ষড়যন্ত্র হয়েছে, তেমনই নতুন শিক্ষাক্রম নিয়েও অনেক বাধা তৈরি হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। বুধবার (২৯ মার্চ) আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে ‘জাতীয় শিক্ষাক্রম বিস্তরণ ও দেশব্যাপী প্রধান শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে এ মন্তব্য করেন তিনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমাকে এবং বইয়ের লেখক জাফর ইকবাল ভাইসহ (শিক্ষাবিদ মুহম্মদ জাফর ইকবাল) বেশ কয়েকজনকে কদর্য ভাষায় আক্রমণ করা হয়েছে। কেউ কেউ বলেছেন— চামড়া মোটা করতে হবে, পিঠে কুলা বাঁধতে হবে। কিন্তু আমরা দমে যাবার পাত্র নই। আমাদের দেশকে এগিয়ে নেবার জন্য, নতুন প্রজন্মের ভবিষ্যৎ নির্মাণ করবার জন্য, আর যে স্বপ্ন নিয়ে এত ত্যাগের বিনিময়ে দেশটি তৈরি হয়েছিল, সেই স্বপ্নের জায়গায় পৌঁছাবার জন্য— আমাদের যা কিছু এখন করণীয়, তা আমাদের করতেই হবে। এটা আমাদের কর্তব্য। এটা আমাদের দায়িত্ব। এটা আমাদের পালন করতেই হবে।’

দীপু মনি বলেন, যত বিরোধিতা থাকুক, যত ষড়যন্ত্রই থাকুক, যত প্রতিবন্ধকতাই থাকুক— নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়িত হবে। আমাদের শিক্ষার্থীরা বিশ্বনাগরিক হবে। আপনারা আস্থা রাখুন, এই যে শিক্ষাক্রম বাস্তায়ন শুরু হয়েছে, আগামী এক বছরের মধ্যে বাচ্চাদের যে পরিবর্তন দেখতে পাবো, আমরা গর্ব অনুভব করবো, দৃঢ় প্রত্যয়ে তা বলতে পারি। 

পরবর্তী প্রজন্মের প্রতি আমাদের যে অঙ্গীকার, যে প্রত্যয়— আমাদের দেশটা যেখানে নিয়ে যেতে চাই, সেই জায়গায় নিয়ে যাবার জন্য আমাদের এই কাজটি করতেই হবে। সেখানে সমালোচনা থাকতে পারে বাধা আসতে পারে, প্রতিবন্ধকতা থাকতে পারে। হয়তো আবার কদর্য ভাষার আশ্রয় নিতে পারে, নিক, কিচ্ছু যায় আসে না, আমরা এগিয়ে যাবোই, জয়ী হবোই।

তিনি বলেন, কোচিংয়ের সব কিছু খারাপ তা তো নয়। কোচিং কথাটাও খারাপ নয়, বাণিজ্য কথাটাও খারাপ নয়। কিন্তু যারা শ্রেণিকক্ষে পাঠদান না করে বাধ্য করেন শিক্ষার্থীকে কোচিংয়ে যেতে, সেখান থেকে রোজগারটা করেন অতিরিক্ত, সেখানে সমস্যা। এই কাজ যারা করেন, শিক্ষার্থীদের কোচিং করান, তাদের একটি মহা ভয়, ভয়টি অমূলক নয়। কারণ, এই শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন হয়ে গেলে কোচিং দরকার হবে না। আরেকটি পক্ষ আছে নোট বই-গাইড বই, তাদেরও ভয় নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন হয়ে গেলে তো নোট বই-গাইড বই দরকার হবে না। তাদের ভয়টিও অমূলক নয়। এই শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন হলে নোট বই-গাইড বই প্রয়োজন হবে না।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

মন্তব্য