বগুড়ায় অপহরণের পর টাকা না পেয়ে শিশুকে হত্যা

  • অনলাইন
  • শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১ ০৭:২৩:০০

বগুড়ার গাবতলীতে মুক্তিপণের দাবিতে আবু হানজেলা (৬) নামের শিশুটিকে অপহরণের পর হত্যা করে লাশ পুকুরে ফেলে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। খবর পেয়ে গাবতলী থানা পুলিশ বৃহস্পতিবার রাত ৯টায় লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে।

শুক্রবার বগুড়ার গাবতলী থানার ওসি মো. নূরুজ্জামান জানান, শিশুটির লাশ উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়। সেখানে ময়নাতদন্ত শেষে শিশুর লাশ পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এই ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করে গ্রেফতার করতে পুলিশ সদস্যরা কাজ করছে।

জানা যায়, ২০২০ সালের ১৩ ডিসেম্বর বিকেল ৩ টায় বাড়ির পশ্চিমপার্শে খেলতে গিয়ে গাবতলী উপজেলার রামেশ্বরপুর ইউনিয়নের নিশুপাড়া গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী পিন্টু মিয়া প্রাং এর ছেলে মো. হানজালাল নিখোঁজ হয়। সন্ধ্যা পর্যন্ত ছেলেকে কোথাও খুঁজে না পেয়ে ঘটনার দিনগত রাতে মা মোছা. তাসলিমা বেগম বাদী হয়ে গাবতলী মডেল থানায় একটি নিখোঁজ হওয়ার জিডি করেন। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ বিভিন্ন জায়গায় ছেলেকে উদ্ধারের জন্য ছুটে বেড়ান মা তাসলিমা বেগম। মাঝে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ চেয়ে ফোন করা হতো মা তাসলিমার কাছে। 
তিনি আরো জানান. চলতি জানুয়ারি মাসের ২১ তারিখ সন্ধ্যা ৬টায় মোবাইল ফোনে একটি নাম্বার থেকে ফোন করে ৫ লাখ টাকা না দেওয়ার ঘটনায় তার ছেলের লাশ রাশেশ্বরপুর নিশুপাপাড়া বটতলা হাড়ির পুকুরে পড়ে আছে বলে জানায়। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর বৃহস্পতিবার রাত ৯ টায় অপহরনকারীদের তথ্য দেয়া ঠিকানার সেই পুকুর থেকে শিশুটির বস্তাবন্দি অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে থানা পুলিশ। নিহত আবু হানজেলা বগুড়ার গাবতলী উপজেলার রামেশ্বরপুর নিশুপাড়ার বাসিন্দা মালয়েশিয়া বাসী পিন্টু মিয়ার ছেলে।

বগুড়ার গাবতলী থানা পুলিশ জানায়, লাশ উদ্ধারের পর দেখা যায়, মুখ ও হাতপা বাধা। পানিতে যাতে ডুবে যায় লাশের বস্তায় মধ্য ইট বাধা ছিল। 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

মন্তব্য