গাইবান্ধার ২৭ লাখ মানুষের আধুনিক চিকিৎসা সেবার দাবী শীঘ্রই পুরন হতে যাচ্ছে।

  • আতিকুর রহমান আতিক গাইবান্ধা
  • মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর ২০২১ ১২:২৯:০০

গাইবান্ধার মানুষের দীর্ঘদিনের দাবী আধুনিক সেবার জন্য আধুনিক একটি হাসপাতাল । যেখানে থাকবে সকল যন্ত্রপাতি ও আধুনিক চিকিৎসা ব্যবস্থা । গাইবান্ধার ২৭ লাখ মানুষের আধুনিক চিকিৎসা সেবার এ দাবী শীঘ্রই পুরন হতে যাচ্ছে।

২শ’৫০ শয্যা বিশিষ্ট গাইবান্ধা জেলা হাসপাতালে সব সময় রোগিদের চাপ থাকে। পর্যাপ্ত অবকাঠামো ও জনবল ও যত্রাংশ সুবিধা নেই বললেই চলে । ফলে অতিরিক্ত রোগির চাপের কারণে শয্যা না পেলে মেঝেতে কিংবা বারান্দায় থেকে রোগিদের চিকিৎসা নিতে হয়। একেতো জনবল সংকট তার ওপর রোগীর চাপ । এতে রোগী সামলানো হিমশিম খেতে হয়। আর সমস্যায় পড়তে হয় হাসপাতাল সংশ্লিষ্টদের । 
এমন অবস্থায়  স্বাস্থ্য সেবা হাতের নাগালে আনতে সরকারী পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়। সরকারের নতুন পদক্ষেপ এর অংশ হিসাবে গাইবান্ধায় জেলা হাসপাতাল সংলগ্ন এলাকায় আধুনিক হাসপাতাল ভবন নির্মান কাজ চলছে । কাজটিও বর্তমানে শেষের দিকে ।  ১০ তলা হাসপাতাল ভবনের মধ্যে ৯ তলা ভবনের কাজ প্রায় শেষের দিকে । 

আধুনিক ও উন্নত স্বাস্থ্য সেবাদানের লক্ষে নতুন করে দশ তলার আধুনিক ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে । ২শ’৫০ শয্যা বিশিষ্ট গাইবান্ধা সদর হাসপাতালের পাশেই এর অবস্থান । ইতিমধ্যে নতুন ভবনের ৯ তলা পর্যন্ত সম্পন্ন হয়েছে। লিফ্টের  একাধিক সিড়ি সুবিধা সম্বলিত এ ভবনটি চালু হলে চিকিৎসা সেবারমান বাড়ার পাশাপাশি শয্যা সঙ্কট দুর হবে। পাওয়া যাবে হাতের কাছেই আধুনিক স্বাস্থ্য সেবা । যেতে হবেনা গাইবান্ধা থেকে অন্যত্র । 
 শুধু তাই নয় গাইবান্ধাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবী গাইবান্ধায় আইসিইউ সুবিধাও থাকছে এ ভবনে। আইসিইউ সুবিধা ও সকল অপারেশনের  সুবিধা থাকলে গাইবান্ধার মানুষকে সামান্য চিকিৎসার জন্য আর রংপুর ও বগুড়ায় যেতে হবে না ।  

গাইবান্ধা নাগরিক মঞ্চ এর নেতা এ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম বাবু জানান, মানুষের আন্দোলন কখনো বৃথা যায়না । আন্দোলনের মাধ্যমেই গাইবান্ধার সমস্যা গুলোকে তুলে ধরা দরকার । তাহলে গাইবান্ধার উন্নয়ন তথা মানুষের উন্নয়ন হবেই হবে । 

গাইবান্ধা জেলা গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল আয়ান জানান , গুরুত্বের সাথে এ হাসপাতালের ভবন নির্মান কাজটি দেখা হচ্ছে। ২০১৯ সালে কাজ শুরু হলেও আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে এর ৯ তলার কাজ সম্পন্ন হবে বলে আশা করা যায়। প্রায় ৩৪ কোটি টাকা ব্যয়ে এ ভবনটি নির্মিত হচ্ছ

গাইবান্ধা হাসপাতালের তত্বাবধায়ক মো : মাহবুব হোসেন বলেন ,গাইবান্ধার প্রথম কোন সরকারি ১০ দশ তলা ভবন নির্মিত  হচ্ছে। হাসপাতালের এ নতুন ভবনটি চালু হলে চিকিৎসা সেবার মান, পাশাপাশি শয্যা সঙ্কট অনেকটায় দুর হবে বলছেন, হাসপাতালে আসা রোগী ও স্বজনরা। সেই সাথে পিছিয়ে থাকা এ জেলায় উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় এগিয়ে যাবে এবং আধুনিকতার ছোঁয়া লাগবে। 

গাইবান্ধার জেলা প্রশাসক মোঃ আবদুল মতিন বলেন ,বর্তমানে ১শ’ শয্যার জনবলে চলছে ২শ’৫০ শয্যার গাইবান্ধা জেলা হাসপাতাল। নতুন এ ভবনটি নির্মাণ সম্পন্ন হলে চিকিৎসাসেবার মান বাড়ার পাশাপাশি আধুনিক অনেক সুবিধা বাড়বে । 

গাইবান্ধা সদর হাসপাতালটি ২শ’ থেকে ২৫০ শয্যায় উন্নিত করা হলেও এতদিন এর অবকাঠামো গত পর্যাপ্ত সুবিধা ছিল না। আধুনিক এ ভবনটি নির্মাণ সম্পন্ন হলে সে সমস্যা দুর হবে এবং চিকিৎসা সেবার উন্নয়ন ঘটবে। 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

মন্তব্য