নৌ সচিবসহ শীর্ষ কর্মকর্তাদের কাঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌরুট পরিদর্শন

  • মাদারীপুর প্রতিনিধি :
  • মঙ্গলবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১০:৪৯:০০

নাব্য সংকটের কারনে কাঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌরুটে আজো ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। মঙ্গলবার নৌ মন্ত্রনালয়ের সচিবসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা নৌরুটটি পরিদর্শন করেন। এরপর এদিন শিমুলীয়া থেকে একটি কেটাইপ ফেরি রওনা দিয়ে ২৮ কিলোমিটার পথ ঘুরে শরীয়তপুরের জাজিরার পালেরচর হয়ে প্রায় সাড়ে ৪ ঘন্টা পর কাঁঠালবাড়ি ঘাটে পৌছেছে। তবে কাঁঠালবাড়ি থেকে একই পথে শিমুলীয়া পৌছতে আরো বেশি সময় ব্যয় হবে বলে ফেরি মাস্টার জানিয়েছেন। বুধবার থেকে এরুটেই কয়েকটি ফেরি চলবে। এদিকে ফেরি চলাচল অচলাবস্থার কারনে উভয় ঘাটে দীর্ঘদিন ধরে আটকে থাকা শত শত পন্যবাহী ট্রাক শ্রমিকরা অবর্ননীয় দূর্ভোগ পোহাচ্ছেন।

বিআইডব্লিউটিএ, বিআইডব্লিউটিসিসহ একাধিক সূত্রে জানা গেছে, গত ৩ সেপ্টেম্বর পদ্মা সেতুর ২৫ নং পিলারের কাছে ৩টি ফেরি আটকে গেলে নাব্যতা সংকটের ফেরি সার্ভিস বন্ধ হয়ে যায়। এরআগে ২৯ আগষ্ট মূল চ্যানেল লৌহজং টার্নিং চ্যানেলসহ বিআইডব্লিউটিএর সকল খননকৃত চ্যানেল বন্ধ হয়ে গেলে পদ্মা সেতুর চায়না চ্যানেল দিয়ে সীমিত আকারে ৫ দিন ফেরি চলে। মধ্য আগষ্টে বিকল্প চ্যানেলটি নাব্যতা সংকটে বন্ধ হয়ে যায়। পদ্মা সেতুর অধিগ্রহনকৃত এলাকায় ৫ আগষ্টের পর সেতু কত্তৃপক্ষের চায়না ড্রেজার স্থাপন করে ড্রেজিং শুরু করে। গত শুক্রবার দুপুরে পদ্মা সেতু ২৫ নং পিলারের কাছে ড্রেজিং সম্পন্ন করে সেতু কত্তৃপক্ষের চায়না ড্রেজার। এরআগে মূল চ্যানেল লৌহজং টার্নিং চ্যানেল ড্রেজিং করে প্রস্তুত করে বিআইডব্লিউটিএ। বন্ধ থাকার ১০ দিন পর শুক্রবার বিকেলে শিমুলিয়া ঘাট থেকে একটি রো রোসহ ৩ টি ফেরি কাঁঠালবাড়ি ঘাটে পার হয়। তবে সকল ফেরি চলাচলের উপযোগী চ্যানেল না হওয়ায় শনিবার ও রবিবার ৪/৫ টি কেটাইপ ফেরি সতর্কতার সাথে চলাচল করে। নাব্যতা সংকট প্রকট আকার ধারন করায় সোমবার সকাল থেকে এরুটের সকল ফেরি আবারও বন্ধ করে দেয় বিআইডব্লিউটিসি।

 মঙ্গলবার নৌ পরিবহন মন্ত্রনালয়ের সচিব মেজবাহ উদ্দিন, বিআইডব্লিউটি এর চেয়ারম্যান কমোডর মোঃ গোলাম সাদেক, বিআইডব্লিউটিসির চেয়ারম্যান মোঃ খাজা মিয়া মঙ্গলবার রুটটি পরিদর্শন করেন। তাদের সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে শিমুলীয়া ঘাট থেকে ৮ টি ট্রাক, ৫ টি ছোট গাড়ি ও একটি মোটর সাইকেল নিয়ে বেলা ১২ টা ২০ মিনিটে কেটাইপ ফেরি ক্যামেলিয়া বিকল্প পথে কাঁঠালবাড়ি ঘাটের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। ফেরিটি প্রায় ২৮ কিলোমিটার ভাটি ঘুরে শরীয়তপুরের জাজিরার পালেরচর হয়ে বিকেল ৪ টা ৫০ মিনিটে কাঁঠালবাড়ি ঘাটে এসে পৌছায়। দীর্ঘ পথ পাড়ি দিতে ফেরিটির খরচ হয়েছে অতিরিক্ত জ্বালানী ও সময়। তবে একই পথে ফেরিটি শিমুলীয়া পৌছতে আরো বেশি সময় ব্যয় হবে বলে ফেরি মাস্টার জানান। এদিকে ফেরি চলাচল অচলাবস্থার কারনে উভয় ঘাটে আটকে পড়েছে ৭ শতাধিক পন্যবাহী ট্রাক। দীর্ঘদিন ঘাটে আটকে থেকে ট্রাক চালক ও শ্রমিকরা অবর্ননীয় দূর্ভোগ পোহাচ্ছেন।

বিআইডব্লিউটিসির মেরিন কর্মকর্তা আহমেদ আলী বলেন, নৌ সচিব স্যারসহ সিনিয়র স্যারদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক আজ দুপুরে ১টি ফেরি নড়িয়ার পালেরচর হয়ে পরীক্ষামূলকভাবে কাঠালবাড়ি গেছে। দূরত্ব প্রায় ২৮ কিলোমিটার। বুধবার থেকে কয়েকটি ফেরি পালেরচর হয়ে চলবে। পন্যবাহী ট্রাক নিয়ে ফেরিগুলো চলবে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

মন্তব্য