মাথার চেয়ে বড় টিউমার, শিশুকে বাঁচাতে চিকিৎসা সহায়তা চাইলেন দরিদ্র মা-বাবা  

  • অনলাইন
  • মঙ্গলবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ ০৯:০১:০০
  • কপি লিঙ্ক

মা-বাবার কোল আলো করে দুই মাস আগে জন্মগ্রহণ করেছে শিশু মো. আরিয়ান। ফুটফুটে এ শিশুটির জন্মগতভাবেই মাথায় টিউমার। দ্রুত অপারেশন না করলে শিশুটিকে বাঁচানো সম্ভব হবে না।

জামালপুরের সরিষাবাড়ি উপজেলার ভাটার ইউনিয়নের ধুপাদহ গ্রামের মো. রুবেল মিয়া ও মোছা. আমেনা বেগম দম্পতির কোল জুড়ে আসে শিশু মো. আরিয়ান। এই দম্পতির ৮ বছরের আরেকটি ছেলে রয়েছে সে স্থানীয় একটি এতিমখানায় পড়াশোনা করছে।

শিশু আরিয়ানের বাবা রুবেল মিয়া ও আমেনা বেগম দুইজনই ঢাকার টঙ্গী একটি গার্মেন্টসে কর্মরত ছিলেন। মা আমেনা বেগমের শিশুটি পেটে আসার ৬মাসের মাথায় চাকরি ছাড়তে হয়েছে। শিশুটিকে হাসপাতালে নিয়ে সময় দেওয়ায় বাবা রুবেল মিয়ার চাকরিটাও চলে যায়।

শিশুসন্তানের এ অসুস্থতা নিয়ে চরম দুশ্চিন্তায় দিন কাটছে দরিদ্র এই পরিবারটির। সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়েও সন্তানের চিকিৎসার ব্যয়ভার মেটাতে পারছেন না আরিয়ানের বাবা।

চিকিৎসকরা বলছেন, দ্রুত অপারেশন করতে। এমন অবস্থায় শিশুটির টিউমার অপারেশন করার জন্য উন্নত চিকিৎসায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যাওয়া অতি প্রয়োজন এবং শিশুটির প্রাণ বাঁচাতে প্রায় ২ লাখ টাকা দরকার। কিন্তু অভাবের সংসারে তার পরিবারের চিকিৎসার ভার বহন করা সম্ভব হচ্ছে না। একদিকে সংসারের অভাব, অন্যদিকে বাচ্চার টিউমার।

তাই তার শিশুকে বাঁচাতে মানবিক সাহায্যের জন্য রাস্তায় রাস্তায় মানুষের কাছে সাহায্য চাইতে হচ্ছে দরিদ্র অসহায় এই পরিবারটির।

আরিয়ানের মা আমেনা বেগম ছেলের চিকিৎসার জন্য সমাজের বিত্তবানদের সহযোগিতা চেয়েছেন।

মানবিক সাহায্য পাঠাতে যোগাযোগ:

শিশু আরিয়ানের দাদা রবিউল ইসলাম কালু

বিকাশ নাম্বার 01633317529)

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

মন্তব্য